মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

প্রাকৃতিক সম্পদ

প্রাকৃতিক সম্পদ বণ্যপ্রাণী, পাখিঃ লাখাই উপজেলা পরিষদটি বর্তমানে যে স্থানে অবস্থিত, এককালে সেখানে জঙ্গল ছিল এবং কাকে মেছো বাঘ বাস করত মর্মে স্থানীয় ব্যক্তিদের মধ্যে গল্প প্রচলিত আছে । সাপের স্বর্গরাজ্য ছিল বলেও জানা যায় । বর্তমানে এ উপজেলায় কোন বন নেই এবং বাঘেরও অস্তিত্ব নেই । কিছু সাপ অবশিষ্ট আছে । সচরাচর যে সকল বণ্যপ্রাণী চোখে পড়ে সেগুলি হল বন বিড়াল, বেজী, শিয়াল, সাপ ইত্যাদি । তবে পাখি দেখা যায় নানা জাতের । শালিক, দোয়েল, ফিঙ্গে, চড়ুই, টুনটুনি, দাঁড়কাক, কাক, বাবুই, পেঁচা, লাল ডানার চিল, ঈগল, সাদা বক, কানি বক, ওয়াক, কয়েক প্রকারের ঘুঘু, হলুদ পাখি, মাছরাঙ্গা, কমলা বুক টুনটুনি, নানা জাতের ছোট পাখি, নীল পিঠের ছোট পাখি, টিয়া, চন্দনা, বাদুড়, বুলবুলি, কাঠ ঠোকরা, বউ কথা কও, মুনিয়া, কোকিল সহ নাম না জানা অনেক ছোট পাখি । বৃক্ষ, বনজ সম্পদঃ লাখাই উপজেলায় কোন বনাঞ্চল নেই । চা বাগান ও নেই । তবে দ্বীপ বেষ্টিত জনপদে বাড়ীর আশে পাশে প্রচুর গাছ গাছালি দেখা যায় । আম, জাম, কাঠাল, পেয়ারা, নারকেল, সুপারি, খেজুর, লেবু, বাতাবি লেবু, রেইনট্রি, করই, বাবলা, আকাশমনি, ম্যানজিয়াম, সেগুন, মেহগনি, শিমুল, চালতা, চাপলিশ, নিম, ঘোড়ারিম, ইউক্যালিপটাস, কামরাঙ্গা, কামরুল, হরবরই, বিলম্বি, লিচু, অর্জুন, অশোক, কাঞ্চন, ডেওয়া, লবঙ্গ, তেজপাতা, ডালিম, বকুল, পলাশ, মহুয়া, আমলকি, হরিতকী, বহেরা, উলটকমল, করমচা, কৃষ্ণচূড়া, ঘৃদকুমারী, খ্রিস্টমাসট্রি, লটকন, সহ নানা জাতের বনজ, ফলজ ও ঔষধি গাছ উপজেলা পরিষদ সহ নানা ন্থানে পাওয়া যায় । তালগাছ খুব একটা চোখে পড়ে না । মৎস্য সম্পদঃ সিলেট, সুনামগঞ্জ, কিশোরগঞ্জ, হবিগঞ্জের অনেক উপজেলার মত লাখাইও মাছ সম্পদের জন্য বিখ্যাত । বর্ষা মৌসুমে বিভিন্ন জাতের এবং রঙের ছোট মাছের এমন বৈচিত্র বাংলাদেশের অনেক জায়গায় দেখা যায় না । ফলে কৃষির পরেই এ অঞ্চলের অধিকাংশ মানুষের জীবন ও জীবিকার প্রধান অবলম্বন মাছ । রুই, শোল, বোয়াল, কাতলা, বাইন, চিংড়ি, শিং, মাগুর, কই, টাকী, লাঠিমাছ, গজার, টেংরা, গুলসা, আইর, গুচি, খইলসা, কালাবাউশ, বইচা, পুটি, পুটা (সর পুটি), মকা, কেচকি, চাপিলা, কাইককা, খইয়া, ভেদা, মেনী, বাইল্যা, ঘুইঙ্গা, পাবদা, বাইম, গুতুম, ইচা, বাঘাইর, মলা, আলুনি, ইত্যাদি মাছ সারা বর্ষা মওসুম ধরে পাওয়া যায় । জলমহাল লীজ নিয়ে কিংবা ব্যক্তিগত পুকুরে অনেক ব্যক্তি মৎস্য চাষের সাথে জড়িত আছেন ।


Share with :

Facebook Twitter